Shahriar Technology. In this website Shahriar-Tech, you can find Mobile Review, PC Help, Apps etc tips. You can also be called me SEO Expert Redoy.

ইউটিউব ভিডিও ব্যাকলিংক তৈরি করুন খুব সহজেই

ইউটিউব ভিডিও প্রমোট করার অন্যতম উপায় হলো ব্যাকলিংক (backlink)। যারা ইউটিউবার তারা ব্যাকলিংক নামটি শুনেছেন আশাকরি। কিন্তু কিভাবে তৈরি করবেন ইউটিউব ভিডিও ব্যাকলিংক? ফেসবুক, টুইটার সহ আরো অনেক সাইটে বারবার লিংক শেয়ার করবেন? না আসলে তা নয়। আপনি অটো ব্যাকলিংক তৈরি করতে পারবেন খুব সহজ উপায়ে।

ইউটিউব ভিডিও র‍্যাংক করাতে, ইউটিউব ভিডিও কিভাবে এসইও সহ র‍্যাংক করাবেন তা জানুন - এই পোস্টটি দেখুন।
video backlink

যেভাবে ব্যাকলিংক তৈরি করবেন

প্রথমেই বলে দিয়েছি, আপনি অটো ইউটিউব ভিডিও ব্যাকলিংক তৈরি করতে পারবেন। কিন্তু অটো ব্যাকলিংক তৈরি শেখার আগে আমরা এর কিছু উপকারিতা ও অপকারিতা সম্বন্ধে জানব।

অটো ব্যাকলিংক এর উপকারিতা :

অটো ব্যাকলিংক তৈরির ফলে আপনার ভিডিও র‍্যাংক করার সম্ভাবনা অনেকগুণ বেড়ে যাবে। কারণ, অটো  ব্যাকলিংক তৈরির ফলে আপনার ভিডিওটি বিভিন্ন সাইটে শেয়ার বা এম্বেড হয়ে যাবে।
এরফলে আপনার ভিডিওটি যে-সব ওয়েবসাইটে এম্বেড হয়ে যাবে সেই সাইটের ভিজিটররা ভিডিওটি দেখতে পারবে এবং আপনার চ্যানেলটি সাবস্ক্রাইবও করতে পারবে। এটাই হলো অটো ব্যাকলিংক এর উপকারিতা।

অটো ব্যাকলিংক এর অপকারিতা :

'অটো ব্যাকলিংক' নামটি শুনে বুঝতেই পারছেন এটি অটোমেটিক একটি কাজ। যেহেতু অটোমেটিক কাজ এটি সেহেতু খুব বেশি ব্যাকলিংক তৈরি করা উচিত নয়। আপনি ১ থেকে ৩ মিনিটের ভিতর প্রায় ৫০০ বা ১,০০০ টি সাইটে ভিডিও লিংক শেয়ার করতে পারবেন।

তবে মাত্রাতিরিক্ত ব্যাকলিংকের ফলে ইউটিউব বা গুগল সেটিকে স্প্যামিং হিসেবে ধরবে। ফলে আপনার ইউটিউব চ্যানেলের ক্ষতি হতে পারে। বেশি মাত্রায় ব্যাকলিংক তৈরির ফলে আপনি ইউটিউব চ্যানেলটিও হারাতে পারেন।
backlink site

ব্যাকলিংক তৈরি :

  • প্রথমে masspings.com - ওয়েবসাইটে যেতে হবে।
  • উপরে YouTube Backlinks - এ ক্লিক করে ব্যাকলিংক পেইজে যান।
  • ব্যাকলিংক পেইজে গেলে নিচে কিছু অপশন সহ ফাকা বক্স দেখতে পাবেন।
  • ID-YOUTUBE-VIDEO, Your Youtube Keyword, Choose number of backlinks বক্সগুলো সঠিকভাবে পূরণ করুন।
  • সবশেষে Start Backlinking - এ ক্লিক করুন।
এভাবে অটো ব্যাকলিংক তৈরি করতে পারবেন। তবে অবশ্যই খেয়াল রাখবেন যাতে একবারে ১০০টির বেশি ব্যাকলিংক না তৈরি না করেন। যদি আপনি ইউটিউবে নিয়মিত হোন এবং প্রতিদিন ১ বা ২টি করে ভিডিও আপলোড দেন সেক্ষেত্রে আপনি ৫০টি ব্যাকলিংক তৈরি করবেন। কখনোই অতিরিক্ত মাত্রায় ব্যাকলিংক তৈরি করবেন না।

আশাকরি পোস্টটি আপনাদের উপকারে আসবে। ব্যাকলিংক তৈরি নিয়ে কোনো প্রশ্ন থাকলে নিচের কমেন্ট বক্সে কমেন্ট করে জানান। পোস্টটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন।
Share:

ইউটিউব ভিডিও কিভাবে এসইও সহ র‍্যাংক করাবেন তা জানুন

প্রথমেই বলি, ইউটিউব ভিডিও র‍্যাংক করাতে হলে অবশ্যই এসইও করতে হবে। অনেকেই আছে যারা ইউটিউবে নতুন। ইউটিউব সম্পর্কে ভালো ধারণা না থাকার ফলে ভিডিও র‍্যাংক করেনা অনেকেরই। ইউটিউব ভিডিও র‍্যাংক করাতে হলে কিছু ছোট-খাটো কাজ করা প্রয়োজন। এই পোস্টটিতে ইউটিউব ভিডিও এসইও নিয়ে বিস্তারিত আলোচনা করবো।

youtube seo,seo,youtube seo tips,youtube ranking factor

ইউটিউব ভিডিও এসইও করবেন যেই কারণে

ইউটিউব ভিডিও এসইও করার ফলে আপনার ভিডিওটি খুব সহজেই র‍্যাংক করতে পারে। ইউটিউব ভিডিও এসইও-এর ফলেই আপনার ভিডিওটি ভাইরাল হতে পারে। এমনকি এই এসইও করার ফলেই আপনি অগণিত সাবস্ক্রাইবারও পেতে পারেন।

ভিডিওতে এসইও না করলে, সার্চ দিলে ভিডিওটি পাওয়ার সম্ভাবনা থাকেনা বললেই চলে। ইউটিউব ভিডিও এসইও করার কিছু নিয়ম রয়েছে। ইউটিউব ভিডিও এসইও করার প্রধান তিনটি সহজ উপায় হলো -
  1.  সঠিক ভিডিও টাইটেল নির্বাচন
  2.  সুন্দর ডেসক্রিপশন
  3.  সঠিক ট্যাগ নির্বাচন
আপনাকে অবশ্যই এই তিনটি নিয়ম মানতে হবে। এখন এই তিনটি বিষয়ের ব্যবহার সম্পর্কে জানবো।

১. টাইটেল নির্ধারণ

আপনাকে অবশ্যই সঠিক টাইটেল নির্বাচন করতে হবে। একটি সঠিক ও সুন্দর টাইটেলের ফলে সার্চ রেজাল্টে আপনার ভিডিও পাওয়া সম্ভব হবে। তবে এসইও ছাড়া তার সম্ভাবনা খুবই কম। টাইটেলটি যেনো ইউনিক হয় সেই বিষটি লক্ষ্য রাখবেন অবশ্যই।

২. ডেসক্রিপশন নির্ধারণ

ডেসক্রিশনে অবশ্যই সুন্দরকরে তথ্য গুছিয়ে লিখবেন। তবে সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ বিষয়টি হলো, ডেসক্রিপশনের প্রথমেই টাইটেল অংশটি রাখবেন। টাইটেল অংশটি আপনার সার্চ র‍্যাংকে ভিডিও পেতে সহায়তা করবে। এজন্যই ডেসক্রিপশনে টাইটেল রাখা জরুরী।

৩. ট্যাগ নির্ধারণ

সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ বিষয়টি হলো ট্যাগ। এই ট্যাগের ফলেই একটি নির্দিষ্ট কি-ওয়ার্ড দিয়ে সার্চ করলে আপনার ভিডিওটি সবার আগে আসে। সঠিক ট্যাগ নির্বাচন করা অবশ্যই জরুরী। যেমন : How to do seo for youtube videos-লিখে সার্চ করলে অনেক ভিডিও আসবে। তবে সঠিক ট্যাগ ব্যবহারের ফলে আপনার ভিডিওটি সার্চ রেজাল্টের প্রথমে আসতে পারে। ধরুন আপনি seo, youtube- এই কি-ওয়ার্ডগুলোকে ট্যাগ হিসেবে দিলেন। কিন্তু ভিডিওটি প্রথম ৫টি পেইজেও পাচ্ছেন না।

এক্ষেত্রে আপনি যদি youtube video seo, how to seo youtube video-এই ধরনের ট্যাগ ব্যবহার করতেন সেক্ষেত্রে সার্চ রেজাল্টে বেশ প্রথমেই পেতেন ভিডিওটি।

আশাকরি, পোস্টটি থেকে উপকার পেয়েছেন। ইউটিউব ভিডিও এসইও সম্পর্কিত প্রশ্ন থাকলে কমেন্ট করে তা জানাতে পারেন।
Share:

প্রিমিয়াম ভার্সন টরেন্ট ডাউনলোডার ব্যবহার করবেন যেভাবে

আমরা অনেক সফটওয়্যার ব্যবহার করে থাকি। তবে প্রিমিয়াম ভার্সন সফটওয়্যার ব্যবহার করতে পারিনা ডলার পে করার জন্য। প্রিমিয়াম ভার্সন সফটওয়্যারগুলো কিনতে হলে আপনাকে গুণতে হবে অনেক টাকা, যা আমাদের পক্ষে অনেক সমস্যার হয়। তবে খুব সহজেই প্রিমিয়াম ভার্সন টরেন্ট ডাউনলোডার পেতে পারেন আপনি। আজকে প্রিমিয়াম ভার্সন টরেন্ট ডাউনলোডার ব্যবহার করবেন যেভাবে তা নিয়ে আলোচনা করবো।
torrent downloader

প্রিমিয়াম ভার্সন ইউটরেন্ট এবং বিটটরেন্ট ডাউনলোড করবেন যেভাবে


আপনি খুব সহজেই প্রিমিয়াম ভার্সন ইউটরেন্ট এবং বিটটরেন্ট ডাউনলোড করে ফেলতে পারবেন। প্রিমিয়াম ভার্সনের জন্য আপনাকে কোনো ডলার খরচ করতে হবেনা। শুধুমাত্র ক্র্যাক ব্যবহার করেই আপনি প্রিমিভার্সন বানিয়ে নিতে পারবেন।

যারা ক্র্যাক ব্যবহারের ফাইল পাচ্ছেনা বা ডাউনলোড করতে সমস্যায় পড়ছেন তারা এই পোস্টটি থেকে উপকার ব্যতীত ক্ষতিগ্রস্থ হবেন না। আপনি এই প্রিমিয়াম ভার্সন ইউটরেন্ট এবং বিটটরেন্ট আপনার ৩২ বিট অথবা ৬৪ বিট কম্পিউটারে ইনস্টল করতে পারবেন। কম্পিউটারের জন্য সফটওয়্যারটি ডাউলোড করতে নিচের লিংকে ক্লিক করুন।
utorrent bittorrent



আশাকরি, পোস্টটি আপনাদের উপকারে আসবে। পোস্টটি কেমন লাগলো তা নিচের কমেন্ট বক্সে কমেন্ট করে জানান এবং পোস্টটি ভালো লাগলে অবশ্যই শেয়ার করুন।
Share:

ডাউনলোড করুন ফুল ভার্সন ইন্টারনেট ডাউনলোড ম্যানেজার

আমরা বিভিন্ন সময় ডাউনলোডের কাজে ইন্টারনেট ডাউনলোড ম্যানেজার ব্যবহার করে থাকি। কিন্তু অনেকেই এই ডাউনলোড ম্যানেজার ডলার দিয়ে কিনে নিতে পারিনা। পেইড ভার্সন ব্যবহার করার কিছু উপায় আছে। আজকে আমি তা আপনাদের সাথে শেয়ার করবো।


যেভাবে ফুল ভার্সন ইন্টারনেট ডাউনলোড ম্যানেজার ডাউনলোড করবেন

ইন্টারনেট ডাউনলোড ম্যানেজার ফুল ভার্সন পেতে হলে আপনাকে ডলার খরচ করতে হবে। তবে আমার মতে তার কোনো প্রয়োজন নেই। আপনি ক্র্যাক ব্যবহার করেই ফুল ভার্সন ব্যবহার করতে পারবেন। নিচের লিংকে ক্লিক করে ফুল ভার্সন ইন্টারনেট ডাউনলোড ম্যানেজারটি ডাউনলোড করে নিন।

IDM 6.27 with Crack

আশাকরি, এখন থেকে ফুল ভার্সন ডাউনলোড ম্যানেজার ব্যবহার করতে পারবেন আপনারা। কোনো প্রশ্ন থাকলে তা নিচের কমেন্ট বক্সে কমেন্ট করে জানান এবং পোস্টটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন।
Share:

This Site is protected by DMCA

Categories

Popular Posts

Recent Posts

শাহরিয়ার টেক

শাহরিয়ার টেক
Shahriar Tech - A Technology Website

Contact Form

Name

Email *

Message *

About Me

authorHello, my name is Shahriar Ahmed Redoy. I'm a 18 year old self-employed student.
Learn More →

Kategori

Kategori

Recent Comments

Categories

Flickr

Recommended Posts

randomposts

Sponsor

AD BANNER

Popular Posts

Featured

Labels

All Page Views